৬০ রুশ কূটনৈতিককে বহিষ্কার করেছে যুক্তরাষ্ট্র

Breaking News: আন্তর্জাতিক আমেরিকা প্রধান সংবাদ

যুক্তরাজ্যে থাকা সাবেক রুশ এজেন্টকে `নার্ভ এজেন্ট’ দিয়ে হত্যার পরিকল্পনার অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্র থেকে ৬০ রুশ কূটনীতিককে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। আজ সোমবার যুক্তরাষ্ট্র থেকে রাশিয়ান এসব কূটনীতিকদের বহিষ্কারের আদেশ দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

নার্ভ এজেন্ট ইস্যুতে যুক্তরাজ্যের পর যুক্তরাষ্ট্রও রাশিয়ার বিরুদ্ধে এমন অবস্থান নিল। পাশাপাশি জার্মানি, ফ্রান্স এবং ইউক্রেনসহ বিভিন্ন ইউরোপীয় দেশও নিজ নিজ দেশ থেকে রাশিয়ান কূটনীতিক বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে তারা এখনও এমন সিদ্ধান্ত কার্যকর করেনি।

চলতি মাসের ৪ তারিখ রাশিয়া যুক্তরাজ্যে অবস্থান করা দেশটির সাবেক গুপ্তচর সার্জেই স্ক্রিপালের ওপর নার্ভ এজেন্ট প্রয়োগ করে। স্ক্রিপালের মেয়ের মাধ্যমে যুক্তরাজ্যের সলসবেরিতে রাশিয়া এই নার্ভ এজেন্ট প্রয়োগ করে বলে অভিযোগ যুক্তরাজ্য-যুক্তরাষ্ট্রের মিত্রদের।

আজ এক বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্ট জানায়, “গত ৪ মার্চ রাশিয়া যুক্তরাষ্ট্রের একজন নাগরিক আর তার মেয়েকে হত্যার জন্য মিলিটারি গ্রেডের নার্ভ এজেন্ট প্রয়োগ করে। আমাদের মিত্র যুক্তরাজ্যের মাটিতে এমন আক্রমণে অগণিত নিরপরাধ মানুষের জীবন হুমকির মধ্যে পরে। ইতোমধ্যে ৩ জন ব্যক্তি গুরুতর আহত হয়”।

রাশিয়ার এমন কর্মকাণ্ডকে রাসায়নিক অস্ত্র কনভেনশন এবং আন্তর্জাতিক আইনের সুস্পষ্ট লংঘন উল্লেখ করে যুক্তরাষ্ট্র সেদেশ থেকে রাশিয়ান কূটনীতিকদের বহিষ্কারের এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে ঐ বিবৃতিতে বলা হয়।

বহিষ্কৃত ৬০ কূটনীতিকের মধ্যে ৪৮ জনই যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসি’তে রাশিয়ান দূতাবাসে কর্মকর্তা। আর বাকিরা নিউ ইয়র্কের জাতিসংঘের কার্যালয়ে কর্মরত আছেন।

এদিকে ইউক্রেন থেকে ১৩ রুশ কূটনীতিককে বহিষ্কারের কথা জানিয়েছে দেশটির প্রেসিডেন্ট পেট্রো পরোশেনকো। বন্ধুপ্রতিম ইংল্যান্ড এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের অন্যান্য দেশগুলোর সাথে সংহতি প্রকাশ করে ইউক্রেন এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানায় প্রেসিডেন্ট পেট্রো।

সূত্র: বিবিসি

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *