স্ত্রীর পরকীয়ার কারণে ফেসবুক স্ট্যাটাস দিয়ে চিকিৎসকের আত্মহত্যা

Breaking News: ক্যাম্পাস প্রধান সংবাদ শিক্ষা সারাদেশ

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের ৪৭ তম এমবিবিএস ব্যাচের ডা. মোস্তফা মোর্শেদ আকাশ আর নেই। ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। বৃহস্পতিবার (৩১ জানুয়ারি) ভোর রাতে তিনি আত্মহত্যা করেন। তবে, মৃত্যুর দুই ঘন্টা আগে এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে তার আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নেয়ার পিছনে তার স্ত্রীর পরকীয়াকে দায়ী করেন।

স্ত্রীকে নিয়ে লেখা তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে তিনি বলেন, আমার ভালবাসা সবসময় ওর জন্য ১০০% ছিল। আমি আর সহ্য করতে পারিনি। আমাদের দেশেতো ভালবাসায় চিটিং এর শাস্তি নেই। তাই আমিই বিচার করলাম আর আমি চির শান্তির পথ বেচে নিলাম।তোমাদেরও বলছি কাউকে আর ভাল নালাগলে সুন্দর ভাবে আলাদা হয়ে যাও চিট করনা মিথ্যা বলনা।আমি জানি অনেকে বিশ্বাস করবেনা এত অমায়িক মেয়ে আমিও এসব দেখে ভালবেসেছিলাম।ভিতর বাহির যদি এক হত।সবাই আমার দোষ দিবে সবকিছুর জন্য তাই ব্যখ্যা করলাম।

ফেসবুক স্ট্যাটাসে তিনি তার মৃত্যুতে শ্বাশুড়ীকে দায়ী করে লিখেন, আমার শাশুড়ী এর জন্য দায়ী এসবের জন্য, মেয়েকে আধুনিক বানাচ্ছে।একটু বেশি বানিয়ে ফেলেছে। উনি চাইলে এখনো সমাধান হত।

ডা. মোস্তফা মোর্শেদ আকাশ চট্টগ্রামের মেডিকেল ভর্তি কোচিং 3 Doctors Academy’র পরিচালক ছিলেন। মৃত্যুর আগে তিনি সাংসারিক জটিলতায় ভুগছিলেন বলে জানা যায়।

এদিকে, তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকেও। “ইন্টার্ন ডক্টরস এসোসিয়েশনস” বিবিএমএইচ (২০১৭-১৭) এর আহ্বায়ক আহমেদ রিজওয়ান আনোয়ার মাশরাফি তার ফেসবুক ওয়ালে লিখেন, মোস্তফা মোর্শেদ ভাই, আমি বিশ্বাস করতে পারতেসি না। চট্রগ্রামে আপনার হাত ধরে অনেকর ডাক্তার হওয়ার শুরু৷ ওপারে ভাল থাকবেন।

চট্রগ্রাম মেডিকেল কলেজের ৫৩তম ব্যাচের ছাত্র ডা. রাশেদ উল করিম সুজন তার ফেসবুক ওয়ালে লিখেন, সবসময় আমাকে নিজের ছোট ভাইয়ের মতো স্নেহ করতেন আকাশ ভাই।। ভাইয়ের সাথে প্রায় দেখা করতাম আজ করলাম উনার লাশের সাথে দেখা। ভাই আমার লাশঘরে চুপচাপ শুয়ে আছেন। ভাই আজ বলেনি চল রাশেদ আজ আমার সাথে সেমিনার চল। ভাইয়ের সাব্জেক্টে ক্যারিয়ার করবো ডিশিসন নেয়ার পর প্রতি মুহূর্তে আমাকে সাহায্য করেছেন।নিজের নোট দিয়েছেন। দিকনির্দেশনা দিয়েছেন। বলেছিলাম এফসিপিএস করে ভাইকে ট্রীট দিবো। গত এক যুগ ধরে পাশে ছিলেন। আজ মনে হচ্ছে আমি আমার বড় ভাই হারালাম।

জাতীয় বক্ষব্যাধি হাসপাতালের রেসিডেন্ট (Pulmonology) এবিএম তানজিরুল ইসলাম তার ফেসবুক স্ট্যাটাস লিখেন, মোস্তফা মোর্শেদ আকাশ ভাই, কোনভাবেই মেনে নিতে পারতেছি না। বন্ধু Asim ও তার পরিবারকে এই শোক সামলানোর তৌফিক দান করুন আল্লাহ। আকাশ ভাই ভালো থাকবেন, আল্লাহ আপনাকে ভালো রাখুক।

ঢাকা ডেন্টাল কলেজের ডেন্টাল সার্জারি বিভাগের শিক্ষার্থী চন্দ্রিমা দত্ত তার ফেসবুক স্ট্যাটাস লিখেন, আমরা একজন ম্যান্টরকে হারালাম,একজন বড় ভাইকে হারালাম।যে ভাইটা সবসময় বলত “তুই আমার ছোট বোন”। ভাইটাকে হারালাম। কতটা অসহায় হলে আকাশ ভাইয়ের মত একজন পজিটিভ মানুষ এই কাজ করতে পারে! সবসময় কেন ভালমানুষ গুলাকে কষ্ট পেতে হবে, তাদেরকেই ক্ষতিপূরন দিতে হবে!!কেন!! একবার শেষ দেখাও হল না ভাইয়া… ভাল থাকবেন ভাইয়া… ওপারে খুব ভাল থাকবেন ডা. মোস্তফা মোর্শেদ আকাশ ভাইয়া।

Spread the love

3 thoughts on “স্ত্রীর পরকীয়ার কারণে ফেসবুক স্ট্যাটাস দিয়ে চিকিৎসকের আত্মহত্যা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *