সুদানে জরুরি অবস্থা জারি

Breaking News: আন্তর্জাতিক এশিয়া প্রধান সংবাদ

সুদানের প্রেসিডেন্ট ওমর আল-বশির দেশটিতে জরুরি অবস্থা জারি করেছেন। সেই সঙ্গে কেন্দ্রীয় সরকার ভেঙ্গে এবং সব প্রদেশের গভর্নরদের পদচ্যুত করে গোটা দেশে জাতীয় জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছেন। এক বছরের জন্য এই জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেন তিনি। দেশটিতে চলমান অস্থিরতার মধ্যে তিনি এই জরুরি অবস্থা ঘোষণা করলেন।

টেলিভিশনে জাতির উদ্দেশে দেওয়া এক ভাষণে সুদানের প্রেসিডেন্ট ওমর আল-বশির জরুরি অবস্থা জারির ঘোষণা দেন। পরে অবশ্য তিনি সশস্ত্র বাহিনী থেকে নতুন করে প্রাদেশিক গভর্নর নিয়োগ দিয়েছেন।

সুদানের জাতীয় নিরপত্তা ও গোয়েন্দা সংস্থার (এনআইএসএস) পক্ষ থেকে অবশ্য এর আগে বলা হয়, প্রেসিডেন্ট বশির ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়াতে পারেন। উল্লেখ্য, দেশটিতে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে চলা সরকারবিরোধী বিক্ষোভের মুখে এমন সিদ্ধান্ত নিলেন প্রেসিডেন্ট।

সুদানের ওমদুরমান শহরে প্রেসিডেন্টের এমন ঘোষণার পর বিক্ষোভকারীরা রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ জানাতে শুরু করেন। কিন্তু পুলিশ ও নিরাপত্তাকর্মীরা বিক্ষোভকারীদের ওপর টিয়ার গ্যাস ছোড়ার মাধ্যমে তাদেরকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। অনেকেই মনে করছেন, এই জরুরি অবস্থা ঘোষণা করার দেশটিতে গৃহযুদ্ধ লাগতে পারে।

জাতির উদ্দেশে দেয়া ওই ভাষণে প্রেসিডেন্ট দেশটির পার্লামেন্টকে সংবিধান সংশোধন বিল স্থগিত করার আহ্বান জানান। কেননা সংবিধান সংশোধন না হলে তিনি আরও এক মেয়াদে ক্ষমতায় থাকতে পারবেন। ভাষণে তিনি দাবি করেন, দেশকে অস্থিতিশীল করে তোলার জন্যই সরকারবিরোধী এই বিক্ষোভ শুরু হয়েছে।

প্রেসিডেন্ট তার ভাষণে বলেন, আমি আগামী এক বছরের জন্য গোটা দেশে জরুরি অবস্থা জারির ঘোষণা দিলাম। তাছাড়া কেন্দ্রীয় ও প্রাদেশিক সরকারকে ভেঙে দেওয়ারও ঘোষনা দিচ্ছি আমি।

তথ্যসূত্র: বিবিসি।

 

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *