ভারতের পর বাংলাদেশে বয়ফ্রেন্ড ভাড়া

বিনোদন লাইফস্টাইল

ভারতের পর এবার বাংলাদেশেও বয়ফ্রেন্ড ভাড়া পাওয়া যাচ্ছে বলে জানা গেছে। রাজধানীর গুলশান, বনানী, বারিধারা, উত্তরা এলাকায় এখন অনেক ধনীর দুলালী বয়ফ্রেন্ড ভাড়া করছে বলে জানা গেছে। আর এই ভাড়ার বিষয়টি তারা আয়ত্ত করেছে ভারতের কাছে থেকে।

যদি আপনি বেকার হন তাহলে এ পেশায় আপনি যুক্ত হতে পারেন এমনটায় বলছেন অনেকেই। তবে, প্রেমিক হওয়ার জন্য দরকার হবে আপনার কিছু যোগ্যতা। এ জন্য আপনাকে উচ্চ শিক্ষিত হতে হবে।
ভারতে বয়ফ্রেন্ড ভাড়া দেওয়ার কাজটি করছে একটি সংস্থা। কিন্তু বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত প্রকাশে কোনো সংস্থা বা সংগঠন গড়ে উঠেনি।

জানা যায়, একাকী মেয়েদের একাকিত্ব কাটাতে বয়ফ্রেন্ড জোগাড় করে দিচ্ছে সংস্থাটি। যে নারী বয়ফ্রেন্ড ভাড়া করবে তার নাম এবং সমস্ত তথ্য গোপন রাখা হবে। তবে বয়ফ্রেন্ড বুক করার ক্ষেত্রে কিছু নিয়ম আছে। কোনো নারী যদি বয়ফ্রেন্ড ভাড়া করতে চান তাহলে তাকে অনলাইনের মাধ্যমে পুরো প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে। ‘রেন্ট এ বয়ফ্রেন্ড’ নামের একটি অ্যাপের মাধ্যমে এটি করা যাবে।

ভারতে এই চাকরির পারিশ্রমিক ঘণ্টায় ২৫০ থেকে ৪০০ টাকা। তবে ছেলের যোগ্যতার উপর নির্ভর করে তার পারিশ্রমিক। যদি ছেলে উচ্চ শিক্ষিত ও দেখতে সুন্দর হন তাহালে তার পারিশ্রমিক বেশি।

তবে ভাড়ার সমস্ত টাকা ‘বয়ফ্রেন্ড’ হিসেবে কাজ করা ছেলেটি নিতে পারবে না। তার কিছু অংশ দিতে হবে ওই সংস্থাকে। আর এই সংস্থা ভায়া হিসেবে কাজের সুযোগ করে দিবে।

আবার যে নারী বয়ফ্রেন্ড ভাড়া নেবে তার জন্যেও রয়েছে কিছু শর্ত। যেমন- ভাড়া করা বয়ফ্রেন্ড নিয়ে কোনো পার্টিতে যাওয়া যাবে না। তার সঙ্গে কোনো শারীরিক সম্পর্ক করা যাবে না ইত্যাদি।

আপাতত ভারতের মুম্বাই ও পুনে শহরে এই পরিষেবা চালু হয়েছে। আর চীনেও এই সেবা রয়েছে বলে জানা গেছে। চীনে বিশেষ করে দীর্ঘ সময় ছুটির সময় মেয়েদের পরিবার তাদের বয়ফ্রেন্ডকে দেখতে চায়। সেই সময় মেয়েরা বয়ফ্রেন্ড ভাড়া করে নিয়ে যায়। বাংলাদেশের নাটক সিনেমায় অনেক সময় বয়ফ্রেন্ড ভাড়া করার দৃশ্য দেখা গেলেও এখন বাস্তবেও ঘটছে। তবে এ পেশায় বেশ রিস্ক রয়েছে বলেও অনেকেই মনে করেন। মেয়েদের কথা মতো চলতে না পারলে বড় ধরনের সমস্যায় পড়তে হয় এমনটা বলেছেন অনকেই।

Spread the love

1 thought on “ভারতের পর বাংলাদেশে বয়ফ্রেন্ড ভাড়া

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *