ব্যাটসম্যান-বোলারদের ব্যর্থতায় প্রথম দিন শেষ

Breaking News: ক্রিকেট খেলা

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে ব্যাটিং ও বোলিং কোনোটাতেই ভালো করতে পারেনি বাংলাদেশ। প্রথম দিন শেষে বলা যায় ম্যাচ নিউজিল্যান্ডের পক্ষেই। টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে বাংলাদেশের তামিম ইকবাল শুধু ভালো করতে পেরেছেন। বাকিরা তেমন কিছু করতে পারেনি।
তামিম ইকবাল তার টেস্ট ক্যারিয়ারের নবম সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন।

তবে, ব্যাট হাতে শুরুটা ততোটাও খারাপ হয়নি বাংলাদেশর। সাদমান হোসেন ও তামিম ইকবাল ৫৭ রান তুলে দেন কোনো উইকেট না হারিয়ে। সাদমানের ফিরে যাওয়ার পর নিয়মিত ও দ্রুত হারাতে থাকে বাংলাদেশের উইকেট। মাত্র ৫৯.২ ওভার খেলে ২৩৪ রানেই অলআউট বাংলাদেশ। অথচ এই রানের মধ্যে তামিম ইকবাল একাই করেন ১২৬ রান।

নিজেদের মাটিতে অবশ্য নিউজিল্যান্ডের সামনে এই রান কিছুই নয়। দিন শেষে দুই ওপেনার মিলেই তুলে ফেলে ৮৬ রান। স্বাগতিকরা পিছিয়ে আছে মাত্র ১৪৮ রানে। ধারণা করাই যায় অতিথিদের জন্য বড় লিড দাঁড় করাবে কেন উইলিয়ামসনের দল।

বাংলাদেশের বোলারদের গতানুগতিক বোলিংয়ের মুখে স্বাচ্ছন্দ্যেই ব্যাট চালান দুই কিউই ওপেনার জেট রাভাল ও টম লাথাম। দিন শেষে দুজনই অপরাজিত থাকেন ৫১ ও ৩৫ রানে।

সাদমান ছাড়া উল্লেখ করার মতো রান আসে কেবল অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ (২২) ও লিটন দাসের (২৯) ব্যাট থেকে।

এক কথায় ওয়ানডের মত করেই অপর প্রান্তে ব্যাট চালাতে থাকেন তামিম। ১০০ বলে ক্যারিয়ারের নবম টেস্ট সেঞ্চুরি পূরণ করেন এই বাঁহাতি ওপেনার। শেষ পর্যন্ত ১২৬ রানে ফেরেন।

বাংলাদেশের ইনিংস থামে ২৩৪ রানে। তবে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের দোষারোপের পরিবর্তে প্রশংসা করতে হয় নেইল ওয়াগনারের। একাই তুলে নেন ৫ উইকেট। তিনটি নেন টিম সাউদি। আর একটি করে নেন ট্রেন্ট বোল্ট ও গ্রান্টহোম।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *