গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ছাড়া সুন্দর দেশ গঠন করা সম্ভব নয়

Breaking News: জাতীয় প্রধান সংবাদ বাংলাদেশ

গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ছাড়া সুন্দর দেশ বা সমাজ গঠণ করা সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, গলমাধ্যমের বিকাশ ও মুক্তগণমাধ্যম অপরিহার্য। ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টের অপপ্রয়োগ হচ্ছে যা কারো কাম্য নয় বলেও মন্তব্য করেন তথ্যমন্ত্রী।

আজ ( বৃহষ্পতিবার) জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনাসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে তথ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন। বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস উপলক্ষে ‘গণমাধ্যম চিত্র: পরিপ্রেক্ষিত বাংলাদেশ’ শিরোনামে জাতীয় প্রেসক্লাব এ আলোচনা সভার অায়োজন করে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, মাথাপিছু আয়ের দিক থেকে আমরা পাকিস্তানকে ছাড়িয়ে গেছি। আগামী দেড়বছরের মধ্যে আমরা ভারতকে ছাড়িয়ে যাব। পঞ্চাশের দশকের মাঝামাঝি থেকে এদেশ খাদ্য ঘাটতির দেশ থাকলেও এখন আমরা খাদ্য উদ্ধৃত্তির দেশ। গণমাধ্যমের সহযোগিতা ছাড়া আমাদের এ অর্জন সম্ভব হতো না।

মন্ত্রী এ সময় বলেন, সরকারের পক্ষ থেকে কখনো গণমাধ্যমের উপর কোন চাপ প্রয়োগ করা হয়নি। কারণ, একটি উন্নত জাতি ও বহুমাত্রিক সমাজ গঠণ করা আমাদের উদ্দেশ্য। উপস্থিত সাংবাদিকদের লক্ষ্য করে তথ্যমন্ত্রী এসময় বলেন, সরকারের সাথে গণমাধ্যমের সম্পর্ক ভাল তার প্রমাণ আপনারা আমাকে এ অনুষ্ঠাণে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। আমার সামনে সমালোচনা করেছেন।

সাংবাদিকদের চাপে ফেলা ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টের উদ্দেশ্য নয় এমন প্রসঙ্গর তথ্যমন্ত্রী বলেন, সারাবিশে ডিজিটাল সিকিউরিটি একটি নতুন বাস্তবতা। অাজ থেকে পনের বছর আগেও মানুষ এ পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়নি। গত দশ বছর ধরে আমরা একে মোকাবেলা করছি। সারাবিশে এ লক্ষ্যে আইন হচ্ছে। বাংলাদেশেও সেই ধারাবাহিকতায় আইন হয়েছে।

তথ্যমন্ত্রী এ সময় আরো বলেন, সাংবাদিকদের চাপে ফেলা কখনোই ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টের উদ্দেশ্য নয়। সাংবাদিকের দায়িত্ব সাংবাদিক পালন করবে। তবে কোথাও কোথাও এ আইনের অপপ্রয়োগ যে হচ্ছেনা তা বলা যাবে না।

অনুষ্ঠাণে সভাপতিত্ব করেন প্রেসক্লাবের সভাপতি সাইফুল আলম। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আআমস আরেফিন সিদ্দিক, প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন, সাংবাদিক শ্যামল দত্ত প্রমুখ।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *