ইয়াবা ব্যবসা নিয়ে চোরের মুখে রাম রাম

Breaking News: প্রধান সংবাদ সারাদেশ

আওয়ামী লীগের সাবেক সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদি ইয়াবা ব্যবসায়ীদের আত্মসমর্পণের আহ্বান জানিয়েছেন। যার বিরুদ্ধে ইয়াবা ব্যবসার অভিযোগ উঠেছিল। তিনি কক্সবাজার-৪ (উখিয়া-টেকনাফ) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য । এখন ওই আসনে তার স্ত্রীই এমপি।

আবদুর রহমান বদি বলেন, টেকনাফে ইয়াবা ব্যবসায় জড়িতদের পাঁচদিনের মধ্যে আত্মসমর্পণ করতে হবে। কেউ আত্মসমর্পণ না করলে এলাকা ছাড়তে হবে।

শুক্রবার বিকালে উপজেলার চৌধুরী পাড়ার বাসভবনে বদির স্ত্রী নব নির্বাচিত সংসদ সদস্য শাহীন আক্তারের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এ আহ্বান জানান।

আবদুর রহমান বদি বলেন, উখিয়া-টেকনাফের মানুষের ভালোর জন্যই মাদকের বিরুদ্ধে লড়াই চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এসব অপকর্ম বন্ধে আমি প্রয়োজনীয় সব কিছু করবো। টেকনাফ হতে ইয়াবার বদনাম ঘোচাতে তিনি সবার সহযোগিতা কামনা করেন।

আবদুর রহমান বদি বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর মাদক বিরোধী অভিযানে এলাকার অনেক ইয়াবা কারবারি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছেন। এতে অনেক মা-বাবা আজ তার ছেলে, স্ত্রী তার স্বামী, সন্তান তার বাবা হারিয়েছে। সেই সমস্ত ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের কথা চিন্তা করে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সংশোধনের জন্য সরকার একটি সুযোগ দিতে চায়। যদি ইয়াবা ব্যবসায়ীরা সরকারের কাছে আত্মসমর্পণ করে তবে তাদের অপরাধ শর্ত সাপেক্ষে সরকার বিবেচনা করবে। অন্যথায় কোনও ইয়াবা ব্যবসায়ীকে ছাড় দেওয়া হবে না।

টেকনাফ উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আহমদ, ভাইস চেয়ারম্যান মো. রফিক উদ্দিন, ইউপি চেয়ারম্যান মো. আজিজ উদ্দিন, আওয়ামী লীগ নেতা সোনা আলীসহ দলটির বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

তবে, অভিযোগ রয়েছে কক্সবাজারে ইয়াবা ব্যবসার প্রধান আবদুর রহমান বদি। তার নির্দেশেই এলাকায় ইয়াবার ব্যবসা হচ্ছে। স্থানীয় অনেক নেতাকর্মী বলেন, চোরের মুখে রাম রাম যেমন কথা তেমনি আবদুর রহমান বদির মুখে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের আত্মসমর্পন করাও একই কথা। এলাকার অনেকেই নাম না প্রকাশের শর্তে বলেন, বদিই ইয়াবা ব্যবসার মুল হোতা। তার কারণেই এই ইয়াবা ব্যবসা বন্ধ হচ্ছে না।
তবে, আবদুর রহমান বদি বরাবরই তার বিরুদ্ধে উঠা অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন। তিনি তাবি করছেন, তিনি এই ব্যবসার সাথে জড়িত নন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *